পরোয়ানা থাকলে পুলিশ ধরবেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0
25

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, যাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা রয়েছে, তাদের খুঁজে বের করে পুলিশ ধরবেই। এটি পুলিশের নিয়মিত কার্যক্রম। বুধবার দুপুরে রাজধানীর মিরপুরে পুলিশ স্টাফ কলেজে বঙ্গবন্ধু কর্নারের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। নির্বাচনকে সামনে রেখে ধরপাকড় শুরু হয়েছে, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, যাদের বিরুদ্ধে পরোয়ানা রয়েছে, যারা অন্যায় করেন তাদেরকে খুঁজে বের করে ধরবে। এটিই পুলিশের নিয়মিত কার্যক্রম। যাদের ধরা হচ্ছে যদি আপনারা দু-একজনের নাম বলেন তাহলে আমি বলে দিতে পারবো তাদের বিরুদ্ধে কতগুলো পরোয়ানা ছিল। মির্জা ফখরুল যেটা বলেছেন সেটা সত্য নয়। যাদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট রয়েছে, সুনির্দিষ্ট মামলা রয়েছে শুধু তাদেরকে ধরা হচ্ছে বলেও জানান তিনি। আমি লিস্টগুলো মাঝে মাঝে দেখি। আমি এমনও দেখেছি একেকজনের বিরুদ্ধে ২০-৩০ টি করে মামলায় পরোয়ানা ইস্যু হয়ে রয়েছে। এসব বহু পুরোনো ওয়ারেন্ট। তাদের বহুবার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তারা আদালতে গিয়ে সারেন্ডার করে যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেন নাই। নির্বাচনকে সামনে রেখে পুলিশকে সাজানো হচ্ছে, বদলি করা হচ্ছে-এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, আমাদের পুলিশ এখন অত্যন্ত দক্ষ, অত্যন্ত অভিজ্ঞ। পুলিশ যে কোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে সক্ষম। নির্বাচনের জন্য পুলিশকে সাজানো-গোছানোর প্রশ্নই আসে না। এদিকে আরাভের বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আরাভ খানকে ফিরিয়ে আনা অসম্ভব নয়। অসম্ভব বলে কিছু নেই, বাংলাদেশ পারে না এমন কিছু নেই। ভারতীয় পাসপোর্টে আরাভ খান নামে দুবাই অবস্থান করা রবিউল ওরফে আরাভ খানকে ফেরানো কতোটা সহজ- এমন প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তাকে ফিরিয়ে আনা অসম্ভব নয়। আর বাংলাদেশের কাছে অসম্ভব বলে কিছু নেই, বাংলাদেশ সবই পারে। পুলিশ কর্মকর্তা মামুন খান হত্যা মামলায় পলাতক আসামি রবিউল ইসলাম ওরফে আরাভ খান দুবাইতে অবস্থান করছেন। গত মঙ্গলবার অস্ত্র আইনের এক মামলায় তাকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদ- দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারদ- দেওয়া হয়েছে। ঢাকার ষষ্ঠ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ও মেট্রো বিশেষ ট্রাইব্যুনাল-১৪ এর বিচারক মুর্শিদ আহাম্মদের আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।