• শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০১:৫৫
সর্বশেষ :
রেমালের জলোচ্ছাসে মোরেলগঞ্জে ৩ শ’ কিলোমিটার সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত পঞ্চগড়ে ১ লাখ ৬৪ হাজার শিশু পাবে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল সংবাদ প্রকাশের পর ক্যান্সারে আক্রান্ত মরিয়মকে চিকিৎসার অর্থ সহায়তা  সেতুমন্ত্রীর ঈদ পরবর্তী দুর্ঘটনা রোধে সড়কে তদারকি বাড়ানোর নির্দেশ এক লাখের বেশি কেন্দ্রে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল রিমালে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৪ পাকিস্তানি নিহত ইরান সীমান্তে সীমান্তরক্ষী বাহিনীর গুলিতে প্রাণ গেল একজনের উড়োজাহাজের সচল ইঞ্জিনের মধ্যে পড়ে ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার ইসরায়েল থেকে ইসরায়েল রাফায় বোমাবর্ষণ অব্যাহত রেখেছে

হাসারাঙ্গা অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ে সাকিবের পাশে

প্রতিনিধি: / ১৫ দেখেছেন:
পাবলিশ: বুধবার, ১৫ মে, ২০২৪

স্পোর্টস: কিছুদিন পরই শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। তার আগে প্রায় ১০ মাস পর জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ফেরেন সাকিব আল হাসান। ব্যাটিংয়ে ভালো না করলেও বোলিংটা ছিল দুর্দান্ত। টি-টোয়েন্টিতে অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ে এখনো সবার ওপরে তিনি। এবার বাংলাদেশের তারকা অলরাউন্ডারের সঙ্গে শীর্ষস্থান ভাগাভাগি করেছেন ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। গতকাল বুধবার আইসিসির সবশেষ হালনাগাদে দুজনই আছেন এখন এক নম্বরে। জিম্বাবুয়ে সিরিজে শেষ দুই ম্যাচে ৫ উইকেট নিয়েছেন সাকিব। বর্তমানে তার রেটিং পয়েন্ট ২৩১ থেকে কমে হয়েছে ২২৮। এদিকে হাসারাঙ্গা আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সবশেষ খেলেছেন এ বছরের মার্চে বাংলাদেশের বিপক্ষে। সিলেটে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ১৩ বলে ১৫ রান করেছেন। ৪ ওভার বোলিংয়ে ৩২ রান খরচ করে নেন ২ উইকেট। তিনে আছেন আফগানিস্তানের অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবী। সাকিব ও হাসারাঙ্গার থেকে তার রেটিং পয়েন্টের পার্থক্য ১০। বাংলাদেশের বিপক্ষে ভালো করার ফল পেয়েছেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক সিকান্দার রাজা। দুই ধাপ এগিয়ে তিনি এখন চারে। পাঁচে আছেন দক্ষিণ আফ্রিকার এইডেন মারক্রাম। টি-টোয়েন্টি বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি হয়েছে মোহাম্মদ তাসকিনের। তিন ধাপ এগিয়ে তিনি এখন ২৩তম স্থানে। পাঁচ ধাপ এগিয়ে মুস্তাফিজুর রহমান উঠে এসেছে ২৫-এ।

 

ছবি-০৯
লখনৌয়ের স্বপ্নভঙ্গ করে আইপিএল শেষ হলো দিল্লির
এফএনএস স্পোর্টস: বেঙ্গালুরুর কাছে হেরে আগের ম্যাচেই বিদায় নিশ্চিত হয়েছিল দিল্লির। তবে নিজেরা প্লে-অফ খেলতে না পারার সেই আক্ষেপ ভোগ করলো লখনৌকেও। নিজেদের ১৪তম ম্যাচে লখনৌকে ১৯ রানে হারিয়ে এবারের আইপিএল শেষ করল ঋষভ পান্থের দল। সেই সঙ্গে এক ম্যাচ হাতে থাকতেই প্লে-অফের লড়াই থেকে ছিটকে গেছে লখনৌ। গত মঙ্গলবার আগে ব্যাট করে লখনৌকে ২০৯ রানের লক্ষ্য দেয় দিল্লি। জবাব দিতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৮৯ রান তুলতে পারে তারা। এতে ১৯ রানের জয় পায় দিল্লি। এতে ১৪ ম্যাচে সাত জয় নিয়ে এবারের আইপিএল শেষ করল দিল্লি। বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে লখনৌ। দলীয় ২৪ রানেই তিন উইকেট হারায় তারা। ইনিংসের পঞ্চম বলে সাজঘরে ফেরেন লোকেশ রাহুল। ৩ বলে ৫ রান করেন তিনি। এদিন ইনিংস বড় করতে পারেননি কুইনটন ডি ককও। ৮ বলে ১২ রান করেন এই প্রোটিয়া ব্যাটার। এরপর উইকেট মিছিলে যোগ দেন মার্কাস স্টোইনিস (৫) এবং দ্বীপক হুদা (০)। তবে এক প্রান্ত আগলে রেখে রান তুলতে থাকেন নিকোলাস পুরান। আইয়ুস বাদোনি ৯ বলে ৬ রান করে আউট হলেও ২০ বলে ফিফটি তুলে নেন পুরান। ২৭ বলে ৬১ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে পুরান আউট হলে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় লখনৌ। ১৮৮ বলে ১৮ রান করে কুর্নাল পান্ডিয়া আউট হলে, দ্রæত রান তুলতে লখনৌকে স্বপ্ন দেখাতে থাকেন আর্শাদ খান এবং যুধভীর সিং। ৭ বলে ১৪ রান করে যুধভীর আউট হলেও ২৫ বলে ফিফটি তুলে নেয় আর্শাদ। শেষ দিকে ৩৩ বলে ৫৮ রান করে আর্শাদ অপরাজিত থাকলেও শেষ রক্ষা হয়নি লখনৌয়ের। নির্ধারিত ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৮৯ রান তুলতে পারে তারা। এতে ১৯ রানের জয় পায় দিল্লি। দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে সর্বোচ্চ তিন উইকেট শিকার করেন ইশান্ত শর্মা। এছাড়াও অক্ষর প্যাটেল, খালিল আহমেদ, ক্রিস্টান স্টাবস, কুলদ্বীপ যাদব এবং মুকেশ কুমার নেন একটি করে উইকেট। এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি দিল্লির। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই সাজঘরে ফেরেন মারকুটে অজি ব্যাটার জ্যাক ফ্রেজার ম্যাকগার্ক। তবে শাই হোপকে সঙ্গে নিয়ে শুরুর ধাক্কা সামাল দেন অভিষেক পোরেল। ২১ বলে ফিফটি তুলে নেন এই তরুণ ব্যাটার। তবে ফিফটি তুলতে পারেননি শাই হোপ। ২৭ বলে ৩৮ রান করে আউট হন এই ক্যারিবিয় ব্যাটার। ৩৩ বলে ৫৮ রান করে তাকে সঙ্গ দেন পোরেল। এরপর ক্রিস্টান স্টাবসকে সঙ্গে নিয়ে রান তুলতে থাকেন অধিনায়ক ঋষভ পান্থ। তবে ইনিংস লম্বা করতে পারেননি তিনি। ২৩ বলে ৩৩ রান করে পান্থ আউট হলে দলের হাল ধরেন স্টাবস। ২২ বলে ফিফটি তুলে নেন এই প্রোটিয়া ব্যাটার। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন অক্ষর প্যাটেল। শেষ পর্যন্ত অক্ষর প্যাটেলের ১০ বলে ১৪ রান এবং স্টাবসের ২৫ বলে ৫৭ রানের অপরাজিত ইনিংসে ভর করে চার উইকেটে ২০৮ রানের বড় পুঁজি পায় দিল্লি। লখনৌয়ের হয়ে নাভিন উল হক দুটি, আর্শাদ খান এবং রবি বিষ্ণু নেন একটি করে উইকেট।


এই বিভাগের আরো খবর
https://www.kaabait.com