• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৪:৫৯

বিহারে সেতু ভেঙে পড়ার হিড়িক, ১৭ দিনে ১২টিতে ধস

প্রতিনিধি: / ১০ দেখেছেন:
পাবলিশ: বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই, ২০২৪

বিদেশ : ভারতের বিহার রাজ্যে সেতু ভেঙে পড়ার ঘটনা যেন থামছেই না। এই নিয়ে গত ১৭ দিনে পরপর ১২টি সেতু ভেঙেছে। এ নিয়ে প্রশাসনে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। সবশেষ সেতু ভাঙার ঘটনা ঘটেছে সারন জেলায়। সেখানে গকী নদীর ওপর নির্মিত সেতুটি বৃহস্পতিবার ভেঙে পড়ে। কিভাবে এটি ভাঙল তা স্পষ্ট নয়। ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় এই নিয়ে শুধু সারনেই তিনটি সেতু ভেঙে পড়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবি ও ভিডিও থেকে দেখা যাচ্ছে, নদীর ওপর তৈরি সেতুটি একবারে মাঝখান থেকে ভেঙে পড়েছে। সেতুর অনেকটা অংশ পানিতে পড়ে গেছে। এই সেতু সারন জেলার সঙ্গে সিওয়ান জেলার সংযোগ রক্ষা করে থাকে। তা ভেঙে পড়ায় গ্রামবাসীরা সমস্যায় পড়েছে। সেতুটি ১৫ বছরের পুরনো বলে জানা গেছে। তবে এই ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর নেই। স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, সেতু ভেঙে পড়ার কারণ জানতে তদন্ত করা হবে। তবে কাছেই রাস্তার কাজ চলছিল। সেই কারণে সেতুটি ভেঙে পড়তে পারে। সব দিক খতিয়ে দেখা হবে। এদিকে গত ১৮ জুন বিহারে প্রথম সেতু ভাঙার খবর প্রকাশ্যে আসে। আরারিয়া জেলায় সেতু ভাঙার পর ২২ তারিখ সিওয়ানেও একইভাবে নদীর ওপর ভেঙে পড়ে একটি সেতু। এরপর ক্রমে পূর্ব চম্পারন, কিসানগঞ্জ, মধুবনী, মুজফফরপুরে সেতু ভেঙেছে। ৩ জুলাই সিওয়ানে তিনটি সেতু এবং সারনে দুটি সেতু ভেঙে পড়ে। গতকাল বৃহস্পতিবার সেই তালিকায় নতুন করে যুক্ত হলো সারনের আরো একটি সেতু। স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে, সেতু ভেঙে পড়ার কারণ জানতে তদন্ত করা হবে। তবে কাছেই রাস্তার কাজ চলছিল। সেই কারণে সেতুটি ভেঙে পড়তে পারে। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার ইতোমধ্যে রাজ্যের পুরনো সেতুগুলোর পর্যবেক্ষণের জন্য সমীক্ষার নির্দেশ দিয়েছেন। সেই সঙ্গে কোন সেতু আগে মেরামত করা দরকার, তা-ও চিহ্নিত করতে বলেছেন। সংশ্লিষ্টরা সেই কাজ শুরু করেছেন বলে জানিয়েছে গণমাধ্যমটি।


এই বিভাগের আরো খবর
https://www.kaabait.com