• শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৯:৫৭

বাংলাদেশের দুই সাঁতারু প্যারিস অলিম্পিকে

প্রতিনিধি: / ১৯ দেখেছেন:
পাবলিশ: মঙ্গলবার, ২ জুলাই, ২০২৪

স্পোর্টস: এবারের প্যারিস অলিম্পিকে সুযোগ পাচ্ছেন বাংলাদেশের দুজন সাঁতারু। তারা হলেন সামিউল ইসলাম রাফি ও সোনিয়া আক্তার টুম্পা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ সাঁতার ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ও বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী সদস্য এম বি সাইফ। বিষয়টি নিশ্চিত করে এম বি সাইফ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আন্তর্জাতিক সাতার ফেডারেশন (ওয়ার্ল্ড অ্যাকুয়াটিক্স) গত সোমবার রাতে আমাদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে। চিঠিতে তারা বলেছে, আমাদের একজন করে নারী ও পুরুষ সাতারু অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করতে পারবে। তার মানে, আমাদের পাঠানো নাম দুটি অনুমোদন করেছে তারা।’ সামিউল ৫০ ও ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোক এবং ৫০ মিটার ফ্রিস্টাইল অংশ নেবেন। সোনিয়া আক্তার নামবেন ৫০ মিটার বাটারফ্লাই ও ফ্রিস্টাইলে। দুই সাঁতারু ওয়াইল্ড কার্ড পাওয়ায় এখন পর্যন্ত প্যারিস অলিম্পিকে বাংলাদেশের ক্রীড়াবিদের সংখ্যা পাঁচজন। তারা হলেন স্প্রিন্টার ইমরানুর রহমান, শুটার রবিউল ইসলাম ও আর্চার সাগর ইসলাম। একমাত্র সাগরই কোটা প্লেস পেয়েছেন। অর্থাৎ সরাসরি খেলবেন তিনি। বাকি চারজন পেয়েছেন ওয়াইল্ড কার্ড। দুই সাঁতারুর ওয়াইল্ড কার্ডে অলিম্পিক গেমসে খেলার বিষয়টি বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনকেও (বিওএ) আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছে ওয়াল্ড অ্যাকুয়াটিক্স। তবে এ ব্যাপারে বিওএর মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা বলেন, ‘গত রাতে দুই সাঁতারুর ওয়াইল্ড কার্ডের চিঠি আমরাও পেয়েছি।’

 

ছবি: ০৫
ভারতের লক্ষ্য এবার টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ও চ্যাম্পিয়নস ট্রফি
এফএনএস স্পোর্টস: গেল শনিবার রোমাঞ্চকর ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৭ রানে হারিয়ে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি শিরোপা জেতে ভারত। তবে এখনো ট্রফি নিয়ে দেশে ফিরতে পারেনি। ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জে হারিকেন বেরিলের কারণে বিমান চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় বিলম্ব হচ্ছে তাদের দেশে ফেরা। গত সোমবার তাদের দেশের উদ্দেশে রওনা হওয়ার কথা থাকলেও দেশটির বিভিন্ন গণমাধ্যমের মতে এই বিপর্যয়ের আরও ৩৬ থেকে ৪৮ ঘণ্টা অপেক্ষা করা লাগতে পারে তাদের। তবে দল দেশে ফেরার আগেই তাদের জন্য বড় পুরস্কার ঘোষণা করেছে বিসিসিআই। শিরোপা জিতেই আনন্দে গা না ভাসিয়ে নিজেদের পরবর্তী লক্ষ্য নিয়ে ভাবছে রোহিত-বিরাটদের কর্তারা। তাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা আগামী বছর নিয়ে। কেননা, ২০২৫ সালে অনুষ্ঠিত হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল ও চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। আর এ দুই আসরের শিরোপাতেই নজর ভারতের। কেননা, এ দুই টুর্নামেন্টেরই সবশেষ আসরের ফাইনাল খেললেও ট্রফি নিজেদের করে নিতে পারেননি রোহিতরা। আগামী বছরের জুনে ইংল্যান্ডের লর্ডসে অনুষ্ঠিত হবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। এ ছাড়া একই বছরের অক্টোবর মাসে পাকিস্তানে বসবে চ্যাম্পিয়ন ট্রফি। আর দুই শিরোপাই নিজেদের কেবিনেটে তুলতে চায় ভারত। স¤প্রতি নিজেদের পরবর্তী লক্ষ্য নিয়ে এমনটি জানিয়েছেন বিসিসিআই সচিব জয় শাহ। তিনি বলেন, ‘আমি চাই ভারত সব শিরোপা জিতুক। আমাদের সবচেয়ে বড় বেঞ্চ স্ট্রেংথ আছে, এই দল (বিশ্বকাপ জেতা দল) থেকে মাত্র তিন জন খেলোয়াড় আগামী শনিবার থেকে শুরু হতে যাওয়া পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে জিম্বাবুয়ে যাচ্ছে। প্রয়োজনে আমরা তিনটি দল নামাতে পারি। এই দল যেভাবে এগোচ্ছে, আমাদের লক্ষ্য বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল এবং চ্যাম্পিয়নস ট্রফি জেতা। সেখানেও একই ধরনের দল খেলবে। সিনিয়ররা (রোহিত শর্মা-বিরাট কোহলি) সেখানে থাকবেন।’ এর আগে গেল বছরের জুলাইয়ে লন্ডনের ওভালে অনুষ্ঠিত হওয়া ২০২১-২০২৩ মৌসুমের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামে ভারত। তবে ঐ ম্যাচে অজিদের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি। হারে ২০৯ রানের বিপক্ষে। এ ছাড়া চ্যাম্পিয়নস ট্রফির ফাইনালেও খেলে ভারত। ২০১৭ সালে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত হওয়া ঐ আসরে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৮০ রানের ব্যবধানে হারে।


এই বিভাগের আরো খবর
https://www.kaabait.com