• শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৮:৪৯

আকরাম রিজওয়ান-ফাখারকে নিয়ে যা বললেন

প্রতিনিধি: / ১৫ দেখেছেন:
পাবলিশ: সোমবার, ১০ জুন, ২০২৪

স্পোর্টস: ভারতের বিপক্ষে হাতের মুঠোয় থাকা ম্যাচ হারায় পাকিস্তানের ব্যাটসম্যানদের ওপর ভীষণ বিরক্ত ওয়াসিম আকরাম। তিন অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মোহাম্মদ রিজওয়ান, ফাখার জামান ও ইফতিখার আহমেদের কড়া সমালোচনা করেছেন তিনি। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে উইকেট বিলিয়ে আসায় তাদের ধুয়ে দিয়েছেন পাকিস্তানের পেস বোলিং গ্রেট। নিউ ইয়র্কে রোববার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচটি ৬ রানে হেরে যায় পাকিস্তান। বোলারদের চমৎকার পারফরম্যান্সের দিনে দলটির ব্যাটসম্যানরা করেন হতাশ। ভারতের ১১৯ রান তাড়ায় ১১৩ পর্যন্ত যেতে পারে তারা। রান তাড়ায় একটা সময় ম্যাচ ছিল পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণে। চতুর্দশ ওভার শেষে রান ছিল ৩ উইকেটে ৮০। শেষ ৩৬ বলে প্রয়োজন ছিল ৪০ রান। তখনও উইকেটে ছিলেন থিতু হয়ে যাওয়া রিজওয়ান। কিন্তু এরপর ঘুরে যায় ম্যাচের মোড়। জাসপ্রিত বুমরাহর করা পঞ্চদশ ওভারের প্রথম বলেই বোল্ড হয়ে যায় ৩১ রান করা রিজওয়ান। ভারতীয় অভিজ্ঞ পেসারের ডেলিভারিটি ক্রস ব্যাটে লেগ সাইডে বড় শট খেলার চেষ্টায় বলের লাইন মিস করেন তিনি। সেই ধাক্কা আর সামাল দিতে পারেনি পাকিস্তান। স্টার স্পোর্টসে আলাপকালে ওয়াসিম বলেন, কোনো ‘গেম ওয়ারনেস’ নেই রিজওয়ানের। তার মতে, বুমরাহর মতো বোলারকে ওই সময়ে এমন শট খেলে নির্বোধের মতো কাজ করেছে তার উত্তরসূরি। “তারা ১০ বছর ধরে ক্রিকেট খেলছে, আমি তাদের শেখাতে পারি না। রিজওয়ানের ম্যাচ সচেতনতা নেই। তার জানা উচিত ছিল যে বুমরাহকে উইকেট নেওয়ার জন্য বল দেওয়া হয়েছিল এবং বুদ্ধিমানের কাজ হলো, তার ডেলিভারিগুলো সাবধানতার সঙ্গে খেলা। কিন্তু রিজওয়ান বড় শট মারতে গিয়ে উইকেট হারায়।” রিজওয়ানের সমালোচনা করতে ছাড়েননি পাকিস্তানের আরেক গ্রেট পেসার ওয়াকার ইউনিসও। “ম্যাচ ছিল হাতের মুঠোয়, বলের সমান রান ছিল। মোহাম্মদ রিজওয়ানের ওই শটটা খুব সাধারণ ছিল এবং যখন সে ওই শটটা খেলে আউট হয়ে গেল, আমি জানতাম বিশেষ কিছু হতে চলেছে কারণ আমরা বুমরাহ ও সিরাজের সামর্থ্য সম্পর্কে জানি।” চির প্রতিদ্ব›দ্বীদের বিপক্ষে রান তাড়ায় একাদশ ওভারে উইকেট যান ফাখার। দ্রæত কিছু রানও তোলেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। এরপরই হার্দিক পান্ডিয়ার বাউন্সারে উইকেটের পেছনে ধরা পড়েন তিনি। যা একদমই পছন্দ হয়নি ওয়াসিমের। রিজওয়ানের বিদায়ের পর ম্যাচটা টেনে নেওয়া উচিত ছিল ইতফিখার আহমেদের। কিন্তু তিনিও সেটা পারেননি। বুমরাহর ফুলটসে ধরা পড়েন লেগ সাইডে। ওয়াসিমের মতে, ব্যাটিংই পারে না ইফতিখার। “ইফতিখার আহমেদ লেগ সাইডে একটা শটই খেলতে জানে। সে বছরের পর বছর ধরে দলের অংশ, কিন্তু কীভাবে ব্যাট করতে হয় তা জানে না। আমি গিয়ে ফাখার জামানকে ম্যাচ সচেতনতার কথা বলতে পারব না। পাকিস্তানি খেলোয়াড়রা মনে করেন, তারা ভালো পারফর্ম করতে না পারলে কোচদের বরখাস্ত করা হবে, তাদের কিছুই হবে না। এখন সময় এসেছে কোচ ধরে রেখে পুরো দলে পরিবর্তন আনার।”


এই বিভাগের আরো খবর
https://www.kaabait.com